চাঁদোয়ায় কথোপকথন
লিখেছেন উম্মে জয়নাব, জুন 4, 2020 6:30 অপরাহ্ণ

রোজ ছাদে আসবে বলো?
মন ভালো হয়ে যায় তাই না!
এমন করে মাথার উপর খোলা আকাশ,
বৃষ্টিদের ঝরে পড়া,
বজ্রপাতের ভয় পাও বুঝি!
তা একটু পাই বয় কি!
দৌড়ে সিড়ির ঘরে লুকায়ে পড়বে!
গোলাপের মিষ্টি গন্ধ এসে নাকে লাগছে তাই না!
ইঁতিউঁতি কি খুঁজছো গোলাপের টব!
মাধবীলতা ফুটেছে তারই সুরভি,
কিচ্ছু খবর রাখো না তুমি!
কি বললে আমি ডেলফিনিয়াম! বন-বাদাড়ে ঘোরা উদ্ভিদ।
বেশ তো আমি নীলমণি লতা, এমন আষ্টেপৃষ্ঠে ধরবো,ছাড়াতে পারবে না!
হি হি মজা করলাম!

আচ্ছা তোমার কখন ছাদে আসতে ভালো লাগে?
খুউব সকালে যখন রবির দেখা মেলে,
ভিটামিন ডি খাও বুঝি,বেশ সুন্দর অভ্যেস!
আমার ভালো লাগে কখন জানো?
সন্ধ্যার পর রাতের শীতলতা যখন নেমে আসে আস্তে আস্তে!
মৃদুমন্দ অনীল যখন পরশ বুলায় কেমন নিবিড়তায় প্রশান্তি ছড়ানো।
আর কি ভালো লাগে শুনবে?
চারপাশের অন্ধকারে ইটপাথরের দেয়ালে জ্বলে থাকা আলো,
জ্যামিতিক জানালায় হলদে,সাদা,নীল আলো!
চারবাহুর মাঝে এই আলো যেন অযুত সম্ভাবনার প্রতীক!

গান শুনবে?রবীঠাকুর না নজরুল…
ভেঙে মোর ঘরের চাবি নিয়ে যাবি কে আমারে
 ও বন্ধু আমার!
না পেয়ে তোমার দেখা, একা একা
দিন যে আমার কাটে না রে ॥
আরেকটা শুনবে….
“নয়ন ভরা জল গো তোমার আঁচল ভরা ফুল,
ফুল নেব না অশ্রু নেব ভেবে হই আকুল…”
আকাশের গান শুনতে ইচ্ছে করছে?
আমি জানি না যে…

 

রোজ ছাদে আসবে বলো?
আকাশের সাথে ছাদের কি গল্প হয়!
কিংবা চাঁদের আলো এসে যখন মায়াময় করে তোলে এই ছাদকে!
জোৎস্নায় কেমন রূপকথারা নেমে আসে!
জানো বেলী ফুল শুকিয়ে কেমন বেগুনে হয়ে ঝরে পড়ে…
মুঠোভরতি করে ঝরাফুল কুড়োতে কি আনন্দ লাগে!
এই ছাদে এসে আর কি কি করো তুমি!
বই পড়তে ভালোবাসো,আরণ্যেকের পাতা উল্টে ভীষণ করে হারিয়ে যেতে ইচ্ছে করে!

 

রোজ ছাদে আসবে বলো?
কথা দাও আসবে, মন খারাপ হলেই আসবে!
বাতাসে দীর্ঘশ্বাস মিলিয়ে যাবে বহুদূর…
আসবো কথা দিলাম আসবো,বারবার ফিরে ফিরে…
ইশশশ, সত্যি আসবে তাহলে সেই গানটা শোনাই…
” যখনি একটু ছুটি পাই,আমি ছুটে যাই ছাদে সন্ধ্যের মুখে…..
যখনি একটু ছুটি পাই,আমি ছুটে যাই ছাদে আকাশ দেখতে….”

Facebook Comments
পোস্টটি ৩১৯ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
০ টি মন্তব্য

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Facebook Comment