Toddler tantrum বনাম আমাদের ভুমিকাঃ
লিখেছেন গাঙচিল, ডিসেম্বর 9, 2019 2:31 পূর্বাহ্ণ

বাচ্চার ব্যপারে – বাবা এবং মায়ের সিদ্ধান্ত কেই প্রাধান্য, সম্মান এবং গুরুত্ব দেয়াটা একটা অতি গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা – পরিবার, সন্তান ও স্পেশালি মায়েদের জন্য।

আপনি যত বড় ভালো, অভিজ্ঞ আর সফল বাবা-মা বা বিচক্ষন ব্যক্তিই হোন না কেন – বাচ্চা ব্যপারে তার বাবা- মায়ের সিদ্ধান্ত টাকেই আমল করে, বিশেষ করে – সেই মাকে একটু সহযোগীতা করুন।

বিষয়টা কেমন??

আচ্ছা একটু উদাহরন দেই—-

আমার সাড়ে তিন বছর বাচ্চার সব খেলনা আমি সাময়িক ভাবে সরিয়ে ফেলেছি। এটাতে তার আচরন গত যে পরিবর্তন হয়েছে সেটা আশানুরুপ। এখন আমি ওকে যেখানেই নিয়ে যাই আগে মেক শিওর করি যাতে কোন টয়স এর প্রতি ওর মনোযোগ না যায়। এক্ষেত্রে অবশ্যই আশেপাশের মানুষজনের সাহায্য আমার লাগবেই। তারা যদি আমার হয়ে এই সহযোগিতা টুকু আমাকে না করতো তাহলে আমার এই প্যারেন্টিং থিওরী ওর কাছে ইনকনসিস্টেন্ট হয়ে যেতো।

অথবা কোন খাবারে সে এলার্জেটিক বা আপনি সিম্পলি ঐ খাবারটা আপনার বাচ্চকে এখন দিতে চাচ্ছেননা অথচ পরিবারের অন্য সদস্যরা বা স্কুলে মিস এবং অন্য বাচ্চারা ঐ খাবারটাই খাচ্ছে।

কি করবেন???

“আরে কিচ্ছু হবেনা” বলে বাচ্চার মুখের সামনে ধরবেন? নাকি বাচ্চার মায়ের কথাটাকেই গুরুত্ব সহকারে নিয়ে বাচ্চাকে যে ভাবে সম্ভব ওটা না খাওয়ানোর চেষ্টা করবেন। আমি বলবো দ্বিতীয় টা করতে। এটাকে বলে কনসিস্টেন্ট প্যারেন্টিং!!

খুউউউব প্র্যাকটিকাল একটা উদাহরন দেই-

বাচ্চার জন্মদিন পালন!!

স্কুল বা বাসায় অন্য সদস্যদের জন্মদিন পালন করেন/ সেলিব্রেট করেন/কেক কাটেন- সমস্যা নাই। আমি মা হিসেবে চাচ্ছিনা আমার সন্তান হ্যাপি বার্থডে/ কেক কাটা কালচারটায় অভ্যস্ত হোক। কিন্ত সে দেখছে তার আশে পাশের সব বাচ্চাদের বাবা মা বাসায় অথবা টিচার স্কুলে এটা সেলিব্রেট করছে। তারটাও করলো।
পরিবার বা বাবা মায়ের এই সিদ্ধান্ত টাকে সম্মান করে কোন পরিপূরক পন্থায় বাচ্চাটাকে বোঝানোর কাজটা না করে এইযে অসামঞ্জস্য পূর্ন পরিস্থিতি তৈরী করলেন- এটাতে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিটা কার হয় জানেন???
বাচ্চাটার!!!

তার এতটুক ছোট্ট মন মগজে যে ক্রাইসিসটগুলো এসমস্ত ইনকসিসটেন্ট আচরনের জন্য তৈরী হয় – সেটার শেষটা বেশীরভাগ সময়ই ভালো হয়না। সে সিদ্ধান্ত হীনতায় ভোগে, সে আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে শেখেনা, নিজের ভালমন্দ বুঝে মেনে নেয়ার মত পরিপক্ক হওয়া শেখেনা। সে বাবা মাকেই ফাইনেস্ট ইম্পর্টেন্স দেয়ার গুরত্ব এবং আদব বোঝেনা।

অথচ, আমরা – বাচ্চা কোন ভুল বা অন্যায় করলে সবার আগে আঙ্গুলটা বাবা মায়ের দিকেই তুলি, তাইনা!??

কিন্তু ঐ পরিস্থিতি টা তৈরীর পেছনে আপনার ভুমিকাটা হলো – এই ছোট ছোট নন কোওপারেশন গুলো। তাই বাচ্চা উচ্ছন্নে যাওয়ার দায় যদি বাবা মাকেই নিতে হয় তাহলে লালন পালন আর শাসনের ক্ষেত্রে তাদের কেই সবচেয়ে গুরুত্ব দিন, তাদের সাহায্য করুন।

আমাদের প্রত্যেকের উচিৎ সকল বাবা মাকে তাদের সন্তানের প্রতি কথা, আচরন আর সন্তানের জন্য নেয়া সিদ্ধান্ত গুলোকে পরিপূর্ন ভাবে আমল করতে আন্তরিক সাহযোগিতা করা।

Facebook Comments
পোস্টটি ৪২৫ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
০ টি মন্তব্য

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Facebook Comment